অধিনায়ক নাসিরের বাজিমাৎ

জয়যাত্রা ডট কম : 04/11/2017

নিজস্ব প্রতিবেদক : অধিনায়ক হিসেবে প্রথম ম্যাচেই বাজিমাৎ করেছেন নাসির হোসেন। তার দল যেমন জিতেছে, তার উইকেট নিয়ে তার ভাবনাও সঠিক প্রমাণিত হয়েছে। তার গেম প্লান নিখুঁত প্রমাণিত হয়েছে।
সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের উইকেট যে ব্যাটিং নির্ভর হতে পারে- এমনটা আভাস পাওয়া গেছে আগেই। শুক্রবার দিনভর অনুশীলন শেষে নাসির হোসাইন বলেছিলেন, আমার যতটুকু ধারণা এই মাঠে রান অনেক বেশি হবে।
বিপিএল-এর উদ্বোধনী ম্যাচে নাসিরের দল সিলেট সিক্সার্সের ব্যাটিং দেখলেই তার ধারণায় সঙ্গে মিল পাওয়া যাবে। যদিও তাদের প্রতিপক্ষ গত বারের চ্যাম্পিয়ন ঢাকা ডায়নামাইটস বড় কোনো লক্ষ্য দিতে পারেনি।

শনিবার টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ২০ ওভারে ৭ উইকেটে মাত্র ১৩৬ রানের লক্ষ্য নির্ধারণ করে দেয় বিপিএল তিন বারের চ্যাম্পিয়ন ঢাকা। জবাবে অনেকটা অনায়াসে জয় তুলে নেয় সিলেট। ১২৫ রানে যখন প্রথম উইকেটের পতন হয় তখন জয় থেকে মাত্র ১২ রান দূরে সিলেট। ১৬.৫ ওভারে ১ উইকেটের বিনিময়ে জয় তুলে নেয় গত বার বিপিএল এ অংশ না নেয়া এই ফ্র্যাঞ্চাইজি। চা বাগান আর সবুজ গ্যালারিতে সুন্দরের রাজকন্যা সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম।

একেবারে নবীন এই স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ জাতীয় দল কিংবা বিদেশী খেলোয়াড়দের ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা নেই। ২০১৪ সালে আইসিসি টি-২০ টুর্ণামেন্টের মহিলা ইভেন্টের মূল ভেন্যু ছিল এটি।
নতুন এই স্টেডিয়ামের সংস্কার কাজ হয়েছে মাত্র এক বছর আগে। পিচগুলোও নতুন করে তৈরি হয়েছে। ৬ পিচের মধ্যবর্তী পূর্ব প্রান্তের পিচে ব্যাটিং কছেবেন সাকিব-সাব্বির-নাসিররা।
উইকেট যে ব্যাটিং নির্ভর সেটা বোঝা গেছে ভেন্যু ম্যানেজার জয়দীপ দাসের কথায়। তিনি জানিয়েছেন, কিউরেটর গামিনি ডি সিলভার তত্ত্বাবধানে পিচগুলো তৈরি করা হয়েছে। বগুড়া থেকে নিয়ে আসা মাটি দিয়ে তৈরি হয়েছে উইকেট।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল বলেন, রকস্টোন দিয়ে তৈরি করা হয়েছে উইকেট। দর্শকরা অধিক রানের ইনিংস পছন্দ করেন। সে বিষয়টি চিন্তায় রেখে উইকেট তৈরি করা হয়েছে।
এ ভেন্যুতে বিপিএল চলতি আসরের মোট ৮টি অনুষ্ঠিত হবে।
বিপিএল : দর্শকপূর্ণ সিলেট ক্রিকেট স্টেডিয়ামে উৎসব মুখর পরিবেশ
কানায় কানায় পূর্ণ ১৮ হাজার দর্শকের স্টেডিয়াম। বিপিএল টি-২০ পঞ্চম আসরের খেলা শুরুর আগেই স্টেডিয়ামের গ্যালারিজুড়ে শুধু দর্শক আর দর্শক। পছন্দের দলের পক্ষে তাদের সমর্থন যেনো উৎসবের পরিবেশ সৃষ্টি করছে।

শনিবার বেলা ২টায় সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে গত বারের চ্যাম্পিয়ন ঢাকা ডায়নামাইটস ও সিলেট সিক্সার্সের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে শুরু হয় পঞ্চম আসরের খেলা।
নিজেদের মাঠে প্রথম বারের মতো অনুষ্ঠিত বিপিএল আসরের উদ্বোধন নিয়ে দর্শকদের আগ্রহ অনেক বেশি। নতুন নামে নিজস্ব পৃষ্ঠপোষকতায় সিলেটের দল এবারের বিপিএল এ অংশ নেয়ায় সে মাত্রা আরো বেশি। খেলা শুরু হওয়ার পরও স্টেডিয়ামের সামনে টিকিট পাওয়ার চেষ্টা ছিল অব্যাহত ছিল। তবে, টিকিট না পেয়ে হতাশ হয়ে ফিরে গেছেন অনেকে।

এদিকে প্রচন্ড রোদের আলো উপেক্ষা করে শুরু থেকে গ্যালারিতে বসে খেলা উপভোগ করছেন ক্রীড়াপ্রেমি দর্শকরা। সব গ্যালারিতে নির্দিষ্ট চেয়ার থাকলেও পশ্চিম প্রান্তে একমাত্র গ্রীণ গ্যালারিতে টিলার উপর সবুজ ঘাসে বসে খেলা উপভোগ করছেন দর্শকরা।

স্টেডিয়ামে আগে ১৩ হাজার ৫ শ’ ৩৩ আসন ছিল। প্রায় ১০ কোটি ৬০ লাখ টাকা ব্যয়ে সম্প্রতি নতুন ক্লাব হাউজ নির্মাণ করা হয়েছে। এখন সিলেট স্টেডিয়ামে গ্যালারির আসন সংখ্যা ১৭ হাজার ১শ’ ৯৩। তবে স্টেডিয়ামে রয়েছে দেশের প্রথম গ্রিন গ্যালারি। এই গ্রীন গ্যালারি ও গ্র্যান্ডস্ট্যান্ড মিলিয়ে আসন সংখ্যা প্রায় ১৮ হাজারেরও বেশি।

আয়োজকরা জানিয়েছেন, সিলেটে মানুষ খেলার প্রতি বেশ আগ্রহী। কিন্তু সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের ধারণ ক্ষমতা মাত্র ১৮ হাজার। তাই, সবাইকে খেলা দেখার সুযোগ দেয়া যাচ্ছে না। পরে আরো অনেক খেলা অনুষ্ঠিত হবে। তখন সিলেটের দর্শকরা উপভোগ করার সুযোগ পাবেন।




সর্বশেষ সংবাদ

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: মো. হাফিজউদ্দিন
সম্পাদক - শরিফা নাজনীন
Mob : 01712 522087
ই- মেইল : [email protected]
Address : 125, New Kakrail Road, Shantinagar Plaza (5th Floor - B), Dhaka 1000
Tel : 88 02 8331019