শর্তের কথা ইসিকে জানাল বিএনপি

জয়যাত্রা ডট কম : 28/11/2017

নিজস্ব প্রতিবেদক : নির্বাচন কমিশনের (ইসি) নিবন্ধিত দল হিসেবে দলের শর্ত প্রতিপালনের বিষয়ে জানিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)। সম্প্রতি দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত চিঠিটি প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদার কাছে পাঠানো হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ, ১৯৭২ এর অনুচ্ছেদ ৯০বি এর দফা (১) (বি)’র ১) ও ৪) এ বর্ণিত শর্ত যথারীতি প্রতিপালন করা হচ্ছে। এ বিষয়ে বিস্তারিত প্রতিবেদন অল্প কিছু দিনের মধ্যে নির্বাচন কমিশনকে প্রেরণ করা হবে। এজন্য সময়ের পর জবাব দেওয়ার জন্য দু:খও প্রকাশ করা হয়।

ইসির জবাবে দলটি আরো জানায়, ৯০বি এর দফা (১) (বি) ২) শর্ত অনুযায়ী দলের সকল পর্যায়ের কমিটিতে ১৫ ভাগ মহিলা সদস্যদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। যা ইতিমধ্যে কমিশনকে জানানো হয়েছে। আগামী ২০২০ সালের মধ্যে অবশ্যই ৩৩ ভাগ লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হবে বলে আমরা আশা রাখি।

৯০বি এর দফা (১) (বি) ৩) বর্ণিত শর্তানুযায়ী বিএনপির পঞ্চম জাতীয় কাউন্সিল-২০০৯ এ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল ও জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দলকে বিএনপি’র অঙ্গ সংগঠন অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। তখন থেকে সংগঠন দুটি নিজস্ব স্বকীয়তায় সহযোগী সংগঠন হিসেবে সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনা করছে বলেও জানায় দলটি।

আরপিওতে রাজনৈতিক দল নিবন্ধন বিধিতে ছাত্র-শিক্ষক, শ্রমিকদের নিয়ে অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন থাকায় নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

এর আগে ইসির যুগ্ম-সচিব (চলতি দায়িত্ব) মো. আবুল কাশেম স্বাক্ষরিত চিঠিতে দলের নিবন্ধন শর্ত প্রতিপালন করা হচ্ছে কি না তা ইসিকে ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে জানাতে বলা হয়।
ইসি কর্মকর্তারা জানান, দলগুলোর প্রতিবেদন পাওয়ার পর নির্বাচিত কমিটি ও মাঠ অফিসের কার্যক্রম ঠিক রয়েছে কিনা তা সঠিকভাবে যাচাইয়ে একটি ‘বিশেষ দল’ তদন্তে নামবে। নিবন্ধনের সময় দেওয়া শর্ত পূরণ করতে না পারলে ইসির নিজস্ব কর্মকর্তাদের প্রতিবেদনের ভিত্তিতে ‘কারণ দর্শানো’নোটিশ দিয়েই প্রাথমিক পদক্ষেপ শুরু হবে।

ইসির সংশ্লিষ্ট শাখা থেকে জানা যায়, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টিসহ ৫টি দল জবাব দেয়ার জন্য সময় চেয়েছে। এছাড়া ১৩টি দল ইসিতে কোনো জবাব দেয়নি। আর এখন পর্যন্ত বিএনপি, জাকের পার্টি, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ), ইসলামী ঐক্যজোট, জাতীয় পার্টি (জেপি), লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিটি), গণফ্রন্ট, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি (এনপিপি), বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট (বিএনএফ), কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ, বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (বাংলাদেশ ন্যাপ), খেলাফত মজলিস, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ ও বিকল্পধারা বাংলাদেশসহ বাকি দলের জবাব ইসির সংশ্লিষ্ট শাখায় পৌঁছেছে।

ইসি সূত্রে জানা যায়, ২০০৮ সালে নিবন্ধন প্রথা চালুর পর এ পর্যন্ত ৪২টি দল নিবন্ধিত হয়েছে। এরমধ্যে স্থায়ী সংশোধিত গঠনতন্ত্র দিতে না পারায় ২০০৯ সালে ফ্রিডম পার্টির নিবন্ধন বাতিল এবং আদালতের আদেশে ২০১৩ সালে জামায়াতের নিবন্ধন অবৈধ রয়েছে।




সর্বশেষ সংবাদ

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: মো. হাফিজউদ্দিন
সম্পাদক - শরিফা নাজনীন
Mob : 01712 522087
ই- মেইল : [email protected]
Address : 125, New Kakrail Road, Shantinagar Plaza (5th Floor - B), Dhaka 1000
Tel : 88 02 8331019