তিস্তা ধুধু মরুভুমি

জয়যাত্রা ডট কম : 15/04/2018

নিজস্ব প্রতিবেদক :

২০ বছর থাকি মাছ ধরি, বাজারোর ব্যাঁচে সংসার চালাও। কয় বছর থাকি অবস্থা খুব খারাপ, নদীত বেশি পানি নাই, মাছো নাই। অল্প এ্যানা পানি আছে তাত মাছো পাওয়া যায় না, ঘণ্টার পর ঘণ্টা জাল ফ্যালে অল্প কয়টা পাওয়া যায়, সংসার চলে না, হাতোত পাইসা কড়িও নাই’।

এভাবে কষ্টের কথা বলছিলেন নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলার গোলমুন্ডা ইউনিয়নের পশ্চিম খামাতপাড়া গ্রামের জেলে আমিনুর রহমান(৬৫)। স্ত্রী সন্তানসহ ১০ জনের সংসার তার। স্থানীয় খাল-বিল, তিস্তা ও বুড়িতিস্তায় মাছ ধরে সংসার চালান তিনি।

ডিমলা উপজেলার খালিশা চাপানী ইউনিয়নের ছোটখাতা গ্রামের ছাইদুল ইসলাম ফরজ। নদীতে মাছ ধরে সংসার চালানো একমাত্র পথ তার। কিন্তু পর্যাপ্ত পানি না থাকায় নদীতে মাছও নেই।

আক্ষেপ করে ছাইদুল ইসলাম বলেন, সারাদিন বসি থাকি এক কেজি মাছ উঠে না জালোত। খায়া না খেয়া বসি থাকির নাগে নদীর পাড়োত। হামার এইলার যে কি হইবে।

তিনি বলেন, সরকার নাকি জেলেদের আইডি কার্ড দিয়া ভাতার ব্যবস্থা করিছে, কই হামরাতো কিছুই পাইছি না। অভাবের এই সময়ে যদি কিছু পাওয়া যাইতো তাহলে ভালোই হইতো।

একই উপজেলার পূর্ব ছাতনাই ইউনিয়নের কলোনি এলাকার আয়নাল হক। তিস্তা নদীর জিরো পয়েন্ট থেকে তিস্তা ব্যারেজ পর্যন্ত নৌকায় ঘুরে বেরিয়েও পর্যাপ্ত মাছ পান না নদীতে।

তিনি বলেন, যখন অভাব পড়ে, চারদিকে অভাব পড়ে। হামার তি কাহো দেখে না। তিস্তা নদী পাড়ে অন্তত পাঁচ’শ জেলে রয়েছে, তারা যে কিভাবে চলে, কেউ একবার খোঁজও করে না। হামার কষ্টের শেষ নাই।

আয়নাল হক বলেন, হামার নদীত মাছ ধরা ছাড়া আর কি করার আছে। অন্য কোনোঠে যাবারও পাই না। তিন বেলা খাওয়া কষ্টকর হয়া পড়িছে। বর্ষার সময় নদীত পানি থাকায় বেশ মাছ পাওয়া যায় আর বাকিটা সময় খান খান(শূন্যতা)।

তিস্তা এলাকা ঘুরে এভাবে করুণ চিত্র জানা গেলো জেলেদের কাছ থেকে। অভাব অনটন এখন তাদের নিত্যদিনের সঙ্গী।

খালিশা চাপানি ইউনিয়নের মাছ ব্যবসায়ী আব্দুস সবুর বলেন, আগের মত আর মাছ পাওয়া যায় না তিস্তা নদীত। দূর দূরান্ত থেকে মাছ নিবার জন্য মানুষ এইঠে ভিড় করছিলো, এখন আর ওই রকম দেখা যায় না। আশপাশের বাজারগুলোতেও মাছ পাওয়া যায় না তেমন। মানুষ ঠিকমত মাছ খেতেও পারছে না।




সর্বশেষ সংবাদ

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: মো. হাফিজউদ্দিন
সম্পাদক - শরিফা নাজনীন
Mob : 01712 522087
ই- মেইল : [email protected]
Address : 125, New Kakrail Road, Shantinagar Plaza (5th Floor - B), Dhaka 1000
Tel : 88 02 8331019