বিশ্বকাপে সালাহদের লক্ষ্য নকআউট পর্ব

জয়যাত্রা ডট কম : 10/06/2018

অনলাইন ডেস্ক:
মোহাম্মদ সালাহর কারণেই দীর্ঘ ২৮ বছর পরে ফিফা বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পেয়েছে মিশর। তবে এত বছর পরে উঠা দলটির লক্ষ্য এবারের বিশ্বকাপের নকআউট পর্ব। সম্প্রতি ফুটবল বিষয়ক জনপ্রিয় ওয়েবসাইড মার্কার সঙ্গে সাক্ষাতকারে মিশরের সেরা তারকা মোহাম্মদ সালাহ তাদের বিশ্বকাপের স্বপ্নের কথা জানান।

তিনি বলেন,‘আমি মনে করি আমাদের অনেক ভালো টিম আছে। আমাদের ভালো কোচও আছে। তাই ভালো খেলেই আমরা নক আউট পর্ব নিশ্চিত করতে চাই।’

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে ইনজুরিতে পড়েছেন মোহাম্মদ সালাহ। শঙ্কা ছিল বিশ্বকাপ খেলা নিয়ে। তবে সেই আশঙ্কা কাটিয়ে এখন অনেকটাই ভালো এই তারকা। নিজের বর্তমান অবস্থা নিয়ে তিনি বলেন, ‘এখন ভালো আছি। আশা করি উরুগুয়ের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে খেলতে পারবো তবে সেটা নির্ভর করবে ওই মুহুর্তে আমি কতটা ভালো অনুভব করি তার উপর।’

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে রামোসের ফাউলের পরে সালাহ ভাবছিলেন হয়তো বিশ্বকাপেও খেলতে পারবেন না তিনি। আর এভাবে চোটে পড়াটা ছিল তার জীবনের সবচেয়ে খারাপ মূহুর্ত। সালাহ বলেন, ‘ইনজুরিতে পড়ে সেদিনের ফাইনাল ম্যাচ থেকে বেরিয়ে যাওয়াটা ছিল আমার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে খারাপ মুহূর্ত। আমি ভাবছিলাম হয়তো বিশ্বকাপটাও খেলতে পারবো না। এটা খুবই ভয়াবহ ছিল। পরে অবশ্য জানতে পারি যে বিশ্বকাপে আমার খেলার সম্ভাবনা রয়েছে।’

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে সালাহর পড়ে যাওয়ার পেছনে রামোসকে দুষছেন সবাই। এই বিষয়ে সালাহকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘হয়তো! তবে এই বিষয়ে আসলে আমি সেভাবে বলতে পারবো না।’

রামোসের জন্য বিশ্বকাপ ঝুঁকিতে পড়েছেন মিশরের প্রান মোহাম্মদ সালাহ। বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ডে সেই রামোসের স্পেনের বিপক্ষে খেলার সম্ভাবনা রয়েছে সালাহদের। আবারও রামোসের বিপক্ষে খেলা নিয়ে সালাহ বলেন, স্পেন অথবা পর্তুগাল দুইটা টিমই অনেক ভালো। তাদের বিপক্ষে খেলা যেকোন দলের জন্যই কঠিন। তবে খেলায় কখন কি হয় সেটা আপনি বলতে পারবেন না।’

সালাহর কাছে মিশরের বিশ্বকাপে উঠাটাই স্পেন জয়ের সমান। তিনি বলেন, ‘আমাদের (মিশর) জন্য বিশ্বকাপে সুযোগ পাওয়াটাই স্পেনের বিশ্বকাপ জয়ের সমান। স্পেনে আমার অনেক বন্ধু রয়েছে। আমি ডিয়েগোকে (কস্তা) অনেক পছন্দ করি। সে একজন উঁচু মানের মানুষ এবং খেলোয়াড়।’

২৫ বছর বয়সী সালাহর জীবনে এটাই প্রথম বিশ্বকাপ খেলার সুযোগ। তবে তার জীবনের প্রথম বিশ্বকাপের স্মৃতি হলো ২০০২ বিশ্বকাপের ফাইনাল। এই বিষয়ে তিনি তিনি বলেন,‘ আমার মনে হয় আমার দেখা প্রথম বিশ্বকাপ হলো ২০০২ সালের বিশ্বকাপ। সব মনে নেই তবে সেই ম্যাচটি আমি আমার শহরে এবং আমাদের বাসায় বসেই দেখেছি। সেই ম্যাচে ব্রাজিল ২-১ ব্যবধানে জিতে। ব্রাজিলের হয়ে দুটিই গোলই করেন রোনালদো।’




সর্বশেষ সংবাদ

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: মো. হাফিজউদ্দিন
সম্পাদক - শরিফা নাজনীন
Mob : 01712 522087
ই- মেইল : [email protected]
Address : 125, New Kakrail Road, Shantinagar Plaza (5th Floor - B), Dhaka 1000
Tel : 88 02 8331019