• প্রচ্ছদ » ফিচার » রংপুরে সড়ক দুর্ঘটনা ; পরিবারের দুইজনকে হারানোর শোক আজও কাটেনি


রংপুরে সড়ক দুর্ঘটনা ; পরিবারের দুইজনকে হারানোর শোক আজও কাটেনি

জয়যাত্রা ডট কম : 18/09/2018

রবিউল ইসলাম দুখু, রংপুর:
বিআরটিসি বাসে করে তেঁঁতুলিযযা আতিœয়‘র বাড়ি যাচ্ছিলাম। আমার পাশের সিটে বসাছিল ছোট ছেলে রাজিব মিয়া। স্ত্রী রেজিনা বেগম বসেছিল নারী আসনে। আর বড় ছেলে রুবেল মিয়া ও পুুত্রবধু রোকসানা ছিল পিছনে । রংপুর মেডিকেল মোড় পার হয়ে আমি একটি বিকট শব্দ শুনতে পাই। তার পর কি হয়েছে আর বলতে পারি না। অনেকক্ষণ পর নিজেকে বাম চোখ ও বাম হাত ব্যান্ডেজ অবস্থায় দেখেতে পাই রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বিছানায়।
তিনি জানান, বিকেলে জানতে পারেন তার পুুত্রবধু রোকসানা (২২) আর নেই। স্ত্রীর ডান পা ভেঙ্গে গেছে। বড় ছেলে রুবেল বুকে ও মাথায় আঘাত পেয়েছে। মুমূর্ষু অবস্থায় আছে ছোট ছেলে রাজিব মিয়া (১১)। নিজে খুুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে রাতে রাজিবকে পরের ওয়ার্ডে দেখতে যান। পরের দিন সকালে ঘুম থেকে উঠে আবারও রাজিবের খোঁজে বের হন। তার ওয়ার্র্র্ডের দরজা পার হওয়ার পর শুনতে পান রাজিব আর নেই। এ খবরে তিনি সেখানে পরে যান।
গত সোমবার দুপুরে চোখ দেখাতে আবার রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডা. জি.কে এম আফজাল খানের কাছে আসেন। চিকিৎসা নিতে আসা খুুরশেদ আলম খরসু সড়ক দুুর্ঘটনার বিভিষীকার কথা বলতে গিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।
তিনি জানান, গত রোববার স্ত্রী, বড় ছেলেসহ রংপুর মেডিকেল থেকে ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ি যান। বর্তমানে স্ত্রী রেজিনা বাড়িতে বিচানায় কাতরাচ্ছে। বিছানা থেকে উঠতে পারছে না তার বড় ছেলে। চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করতেও হিমসিম খাচ্ছেন। দিনাতিপাত করছেন অতিকষ্টে।
রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চক্ষু বিশেষঞ্জ ডা. জি.কে এম আফজাল খান জানান, খুরশেদ আলম খরসু তার ত্ববধায়নে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন।
রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক অজয় কুমার জানান, দুর্ঘটনার পর আহত ২৭ জন রোগী ভর্র্তি হয়েছিল। বর্তমানে ৯ জন ভর্তি আছে।
গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বেলকা ইউনিয়নের চেয়যারম্যান মাওলানা ইব্রাহিম মিয়া জানান , পরিবারটির খোঁজ খোবর নেয়া হয়েছে। যাতে করে সরকারিভাবে সহায়তা করা যায সে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।
উল্লেখ্য-গত ২ সেপ্টেম্বর রংপুর মহানগরীর সিও বাজারের সামনে রংপুুর- দিনাজপুর মহাসড়কে বিআরটিসি বাসের সঙ্গে রুবি পরিবহণ নামের অপর একটি যাত্রীবাহি বাসের মুখিমুখি সংঘর্ষ হয়েছিল। এতে নারী ও শিশুসহ ৯ জন নিহত হয়। আহত হয় ২৭ জন।




সর্বশেষ সংবাদ

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: মো. হাফিজউদ্দিন
সম্পাদক - তোফাজ্জল হোসেন
Mob : 01712 522087
ই- মেইল : [email protected]
Address : 125, New Kakrail Road, Shantinagar Plaza (5th Floor - B), Dhaka 1000
Tel : 88 02 8331019