• প্রচ্ছদ » অর্থনীতি » শেখ হাসিনা সেতু হওয়ায় পাল্টে যাচ্ছে রংপুর অঞ্চলের অর্র্থনীতির দৃশ্যপট


শেখ হাসিনা সেতু হওয়ায় পাল্টে যাচ্ছে রংপুর অঞ্চলের অর্র্থনীতির দৃশ্যপট

জয়যাত্রা ডট কম : 25/09/2018

রবিউল ইসলাম দুখু, রংপুর:
রংপুর- লালমনির হাট সীমান্তে তিস্তা নদীর ওপর গঙ্গাচড়া শেখ হাসিনা সেতু খুলে দেয়া হয়েছে। এই সেতু খুলে দেয়ায় বদলে যাচ্ছে রংপুর অঞ্চলের অর্থনীতির সার্বিক দৃশ্যপট। সেতুটিকে ঘিরে এই অঞ্চলের অর্থনীতিতে সমৃদ্ধির পারদ বেড়ে যাচ্ছে। দুই জেলার উৎপাদিত ধান, গম, পাট, আলু, সবজি ও সুপারিসহ বিভিন্ন কৃষি পণ্যের ন্যায্যমূল্য পাচ্ছেন কৃষকরা। নিশ্চিত হয়েছে নিরবিচ্ছন্ন যাতায়াত।

রংপুর মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কর্মার্সের প্রেসিডেন্ট রেজাউল ইসলাম মিলন বলেন, শেখ হাসিনা সেতু চালু হওয়ায় অর্র্থনীতিসহ প্রত্যেকটি ক্ষেত্রে সম্ভবননার দ্বার উন্মোচিত হয়েছে। এই অঞ্চলের ব্যবসা বাণ্যিজর ক্ষেত্রে তৈরি হয়েছে নতুন মাত্রা।সেতুটি ঘিরে দুই জেলায় ছোট ছোট কল -কারখানা ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠা শুরু হয়েছে। এতে লাখো মানুষের কর্র্মসংস্থান সৃষ্টি হবে।

সেতুর উত্তর পাড়ের রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলার লক্ষিটারী ইউনিয়নের পূর্ব ইছলি গ্রামের কৃষক মাহাতাব হোসেন জানান, আগে সেতু না থাকায় সঠিক সময়ে পণ্য বাজারে নিয়ে যেতে পারেন নি। এ কারনে ন্যায় মুল্য থেকে বঞ্চিত হয়েছিলেন। সেতু হওয়ার পর থেকে দ্রুত সকল প্রকার সবজি রংপুর সিটি বাজারে নিয়ে যেতে পারছেন। এ কারনে দামও পারছেন সঠিক।

পশ্চিম ইছলির কৃষক ইসহাক আলী বলেন, আগে যোগাযোগের ব্যবস্থা ভালো না থাকাার জন্য পাইকাররা কম দামে কৃষি পণ্য ক্ষেত থেকে নিয়ে যায়। সেতু হওয়ার পর গত শনিবার পাইকাররা আগের চেয়ে বেশি দামে নেবে বলে ক্রয় করার জন্য আসেন। তিনি পাইকারদের কাছে সবজি বিক্রি করেন নি। কারন হিসেবে জানান, তার বাড়ি থেকে রংপুর সিটি বাজারে আসতে ২০ মিনিট লাগে। তাই নিজেই পণ্য সিটি বাজারে নিয়ে এসে বেশি দামে বিক্রি করেন।

লালমনির হাট জেলার পাটগ্রাম, হাতিবান্ধা, বড়খাতা, কাকিনা আদিতমারি, নামরী ও পলাশী এলাকার কৃষক জব্বার,আইজার, খট্রু, গণি, কফিল ও লাল মিয়া জানান- আগে নৌকায় পারাপার হতে বেশ সময লাগতো। রংপুর সিটি বাজারেই ঢুকতে দেড় থেক দুই ঘন্টা লাগতো। এখন লাগে প্রায় ৩০ মিনিটি। যেমন সময় বাঁচছে তেমনি কৃষি পণ্যের ন্যায্য মূূল্য পাচ্ছেন।

চলতি মাসের ১৭ই সেপ্টেম্বর ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে তিস্তা নদীর ওপর গঙ্গাচড়া শেখ হাসিনা সেতুর উদ্ধোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রংপুর জেলার গঙ্গাচড়া উজেলার মহিপুর ও লালমনিরহাট জেলার কাকিনা পয়েন্টে নব নির্মিত এই সেতুর দৈর্ঘ্য ৮৫০ মিটার এবং ৯ দশমিক ৫ মিটার চওড়া । ২০১২ সালের ২০ সেপ্টেম্বর বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গঙ্গাচড়ার- মহিপুর- লালমনির হাটর কাকিনা পয়েন্টে তিস্তা নদীর ওপর এই সেতুর নির্মাণ কাজের উদ্ধোধন করেন। ১২৪ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত এই সেতুটি ৮৫০ মিটার দের্ঘ্য ও ৯ দশমিক ৫ মিটার চওড়া ।

রংপুর বিভাগ আন্দোলনের আহবায়ক ওয়াদুদ আলী জানান, রংপুর ও লালমনিরহাট জেলার বুড়িমারী স্থলবন্দরের সাথে রংপুরসহ সারাদেশের মানুষ প্রায় পৌনে দুই‘শ বছর ধরে কষ্ট করে চলাচল করে আসছিলেন। এছাড়া যাতায়াতের সময় মালামাল পরিবহণে তাদেরকে কোটি কোটি অতিরিক্ত ব্যায় করতে হয়েছে।এখন তাদের কষ্ট দূর হয়েছে।




সর্বশেষ সংবাদ

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: মো. হাফিজউদ্দিন
সম্পাদক - তোফাজ্জল হোসেন
Mob : 01712 522087
ই- মেইল : [email protected]
Address : 125, New Kakrail Road, Shantinagar Plaza (5th Floor - B), Dhaka 1000
Tel : 88 02 8331019