এএসপি পরিচয়ে নবম বিয়ে, র‌্যাবের হাতে আটক

জয়যাত্রা ডট কম : 03/10/2018

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি:র‌্যাব-পুলিশের বড় কর্মকর্তা পরিচয়ে একের পর এক প্রতারণার অভিযোগে মো. শাহীন আলম ওরফে তারেক ওরফে লিটন ওরফে এএসপি সজিব (২৯) নামের এক প্রতারককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১১।

বুধবার সকালে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের চিটাগাং রোড এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তার কাছ থেকে তিনটি মোবাইল ফোন, পুলিশের ভুয়া আইডি কার্ড, ভিজিটিং কার্ড, পুলিশ ও র‌্যাবের পোশাক পরা এডিট করা তার নিজের ছবি এবং বেশ কিছু বিয়ের কার্ড উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব ও পুলিশের কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে সজিব সর্বশেষ সাতদিন আগে সিদ্ধিরগঞ্জের সানারপাড় এলাকায় নবম বিয়ে করেন। বিয়ের পর কনের পরিবার র‌্যাব-১১’র কার্যালয়ে এএসপি সজিব নামে কোন কর্মকর্তা রয়েছে কিনা তা যাচাই করতে গেলে সজিব যে ভুয়া এএসপি সেটি ধরা পড়ে। পরে মেয়েটির পরিবারের অনুরোধে প্রতারক সজিবকে গ্রেফতার করা হয়।

র‌্যাবের সহকারী পরিচালক এএসপি নাজমুল হাসান স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সজিব একজন পেশাদার প্রতারক। তার বাড়ি নোয়াখালি জেলার বেগমগঞ্জ থানার এখলাসপুর গ্রামে। তার বাবার নাম মো. শহীদুল্লাহ। নিজ এলাকায় সে প্রতারক লিটন হিসেবে পরিচিত। সে দীর্ঘ দিন যাবৎ নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় র‌্যাবের এএসপি পরিচয়ে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে নানা ভাবে প্রতারণা করে আসছিল।

এতে আরও জানানো হয়, সজিব তার প্রতারণা অব্যাহত রাখতে এবং মানুষের বিশ্বাস অর্জনের জন্য সে তার মোবাইল ফোনে ফটোশপের মাধ্যমে এডিট করে র‌্যাব ও পুলিশের বিভিন্ন কর্মকর্তার মুখমণ্ডলের স্থলে নিজের ছবি বসিয়ে দিতো। এমন কি একটি ছবিতে দেখা যায় যে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে রাষ্ট্রীয় পদক পরিয়ে দিচ্ছেন। শুধু তাই নয় সাধারণ মানুষের আস্থা অর্জনের জন্য সে রাষ্ট্রের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকের ছবি এডিট করে সেখানে তার নিজের ছবি বসিয়ে দিতো।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, প্রতারক সজিব শুধু র‌্যাবের এএসপিই নয়, কখনো কখনো পুলিশের এসআই এবং র‌্যাবের ওয়ারেন্ট অফিসার হিসেবেও পরিচয় দিতো। তার কাছ থেকে উদ্ধার করা বিয়ের কার্ডের ওপর র‌্যাব ও পুলিশের বিভিন্ন কর্মকর্তাদের নাম লেখা ছিল। তার বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ ও এর আশপাশের এলাকা থেকে বিদেশ পাঠানোর কথা বলে অনেকের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ারও অভিযোগ রয়েছে।

এতে জানানো হয়, সর্বশেষ গত পহেলা অক্টোবর সিদ্ধিরগঞ্জ হাউজিং এলাকায় ৩ কোটি টাকা মূল্যের একটি বাড়ি কেনার জন্য সে বাড়িটির মালিকের কাছে র‌্যাবের এএসপি পরিচয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে আসছিল বলেও অভিযোগ রয়েছে। তার বিরম্নদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।




সর্বশেষ সংবাদ

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: মো. হাফিজউদ্দিন
সম্পাদক - তোফাজ্জল হোসেন
Mob : 01712 522087
ই- মেইল : [email protected]
Address : 125, New Kakrail Road, Shantinagar Plaza (5th Floor - B), Dhaka 1000
Tel : 88 02 8331019