• প্রচ্ছদ » ফিচার » কারমাইকেল কলেজ স্বাস্থ্যকেন্দ্র ৩২ হাজার শিক্ষার্থীর জন্য একজন চিকিৎসক


কারমাইকেল কলেজ স্বাস্থ্যকেন্দ্র ৩২ হাজার শিক্ষার্থীর জন্য একজন চিকিৎসক

জয়যাত্রা ডট কম : 11/03/2019

রবিউল ইসলাম দুখু,রংপুর : উত্তরাঞ্চলের অক্সফোর্ডখ্যাত কারমাইকেল কলেজের প্রায় ৩২ হাজার শিক্ষার্থীর জন্য ১টি স্বাস্থ্যকেন্দ্র এবং দায়িত্বপালন করছেন একজন চিকিৎসক ও কম্পাউনন্ডার।নেই চিকিৎসার প্রয়োজনীয় উপকরণ ও ওষুধপত্র। এই স্বাস্থ্যকেন্দ্রে রয়েছে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার অভাব। প্রতিষ্ঠার কয়েক যুগ পার হলেও স্বাস্থ্যকেন্দ্রটিরতে উন্নয়নের কোন ছোঁয়া লাগেনি বলে জানা যায়।

শিক্ষার্থীরা জানায়, ১৯১৬ সাল থেকে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে আসা এ প্রতিষ্ঠানটির ওই কেন্দ্রে চিকিৎসার ন্যূনতম সুযোগ-সুবিধা নেই। ৩২ হাজার শিক্ষার্থীর জন্য রয়েছেন মাত্র একজন চিকিৎসক। সেই চিকিৎসকের পারটাইম জব হওয়ার কারনে তাকে স্বাস্থ্যকেন্দ্র সহজে পাওয়া যায় না। এছাড়াও বেশির ভাগ সময় স্বাস্থ্যকেন্দ্রটিট বন্ধ থাকে।

বাংলা বিভাগের ছাত্র সফিক মিয়া জানান, দিন দিন চিকিৎসা সেবার মান হ্রাস, পর্যাপ্ত পরিমাণ চিকিৎসা সেবার সরঞ্জাম না থাকা, মেডিকেল সেন্টারে বাথরুমে দুর্গন্ধ থাকলেও কর্তৃপক্ষের কার্যকর পদক্ষেপের অভাব রয়েছে।
একই বিভাগের শিক্ষার্থী সিথি রায় জানান, এখানে সব সময় ডাক্তার থাকে না। কম্পাউনন্ডারের মাধ্যমে সেবা নিতে হয়।
ইংরেজি বিভাগের সিরাজুল ইসলাম জানান, মাথাব্যথা, জ্বর, ডায়রিয়ার ওষুধ ছাড়া অন্য কোনো রোগের ওষুধ পাওয়া যায় না মেডিকেল সেন্টারে।

অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী রানা মিয়া বলেন, বেশির ভাগ সময় হাতে ধরিয়ে দেয়া হচ্ছে প্রেসক্রিপশন। পর্যাপ্ত ওষুধ আর নিয়মিত চিকিৎসক না থাকায় বাধ্য হয়ে যেতে হচ্ছে ক্লিনিক ও রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।
জানা যায়, মেডিকেল সেন্টারটিতে চিকিৎসা সরঞ্জাম হিসেবে রয়েছে একটি ওজন মাপার মেশিন, প্রেশাার মাপার দু’টি যন্ত্র, আলমারি আর সামান্য কিছু মেডিসিন।

বাঁধনের কারমাইকেল কলেজ শাখার কয়েকজন সদস্য জানান, এখানে ৩২ হাজার শিক্ষার্থী লেখাপাড়া করছে। স্বাস্থ্যকেন্দ্রটিতে সেবার মান বাড়ানো উচিত। সেই সাথে তারা একটি অ্যাম্বুলেন্স সংযোজনেরও দাবী জানান।
চিকিৎসক সর্মিলা সরকার রুমা জানান, তিনি পারটাইম নিয়োগ পেয়েছেন। সপ্তাহে শনি, সোম ও বুধবার স্বাস্থকেন্দ্রে বসেন। এছাড়া তিনি ফোনেও পরামর্শ দিয়ে থাকেন বলেও জানান।

কম্পাউনন্ডার জোবাইদুল ইসলাম জানান, এখানে শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরাসহ তাদের পরিবারের লোকজনও আসেন চিকিৎসা নিতে। যথাসাধ্য সেবা দেয়া হয়। স্বাস্থ্যকেন্দ্রটিতে ১৫/১৬ প্রকারের ওষুধ দেয়া হয়।
কারমাইকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডক্টর মো: শেখ আনোয়ার হোসেন জানান, ৪ মাস আগে এই স্বাস্থকেন্দ্রের জন্য একজন চিকিৎসক নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এছাড়াও প্রতি মাসে ওষুধ কেনা হয়ে। আগের চেয়ে সেবার মান বাড়ছে।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক - তোফাজ্জল হোসেন
Mob : 01712 522087
ই- মেইল : [email protected]
Address : 125, New Kakrail Road, Shantinagar Plaza (5th Floor - B), Dhaka 1000
Tel : 88 02 8331019