• প্রচ্ছদ » বিনোদন » বাংলা নববর্ষ উদযাপন নিরাপত্তায় খুশি রংপুর বিভাগের মানুষ


বাংলা নববর্ষ উদযাপন নিরাপত্তায় খুশি রংপুর বিভাগের মানুষ

জয়যাত্রা ডট কম : 15/04/2019

রবিউল ইসলাম দুখু, রংপুর: রংপুর নগরীর ধমদার্স এলাকার আদিবাসি রবিন কেরকাটা জানান, নগরীর প্রতিটি অনুষ্ঠান ঘিরে র‌্যাব ও পুলিশের টহল ছিল। গতবারের চেয়ে বাড়তি নিরাপত্তা দেখতে পেয়ে তিনি খুশি।

বেগম রোকেয়ো বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র যুগেশ ত্রিপুরা জানান, প্রশাসন সবই পারে। তার প্রমাণ পহেলা বৈশাখ শান্তিপূর্ণভাবে পার হলো।
মন্ডলপাড়ার গৃহিনী মনোয়ারা বেগম জানান, এবার মনে কোন ভয় ছিল না। মহা আনন্দেই নববর্ষের দিন ঘুরা-ফেরা করি।

রংপুর কামউনিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ছাত্র নেপালের পাম্পো, ভারতের রজনি কান্ত রায় জানান, তারা র‌্যালির পর নগরীর বিভিন্ন স্থান ঘুরেছেন। তারা যে অনুষ্ঠানেই যান যান সেখানেই দেখতে পুলিশের উপস্থিতি, আর ছিল র‌্যাবের টহল। প্রশাসনের এ নিরাপত্তায় তারা সন্তুষ্ট।
গত রোববার ছিল পহেলা বৈশাখ। নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে কিভাবে নববর্ষ উদযাপন করেন সেই কথা জানান- রংপুর নগরীর আদিবাসি রবিন, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র যুগেশ ত্রিপুরা, মন্ডলপাড়ার গৃহিনী মনোয়ারা বেগম এবং রংপুর কামউনিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ছাত্র পাম্পো (নেপাল) ও রজনি কান্ত (ভারত)।

বাঙালি সংস্কৃতির চিরায়িত ঐতিহ্য আর আবহামান বাংলার শেকড়ে ফিরে যেতে গ্রামগঞ্জে আর পাড়া মহল্লায় বৈশাখের আমেজ ছিল বেশ। সকাল থেকে শুরু হয় বর্ষবরণের অনুষ্ঠান । শিশু মঙ্গলশোভা যাত্রা, পান্তাভোজ, দেশীয় খোলাধুলা, সাংস্কৃতিক পরিবেশনা বিভিন্ন আয়োজন ছিল পহেলা বৈশাখে। সকাল ৭টায় থেকে সাড়ে আটায় পর্যন্ত রংপুর জিলা স্কুলের বটতলা বৈশাখী চত্বরে ছিল একাডেমি ও শিল্প কলা একাডেমির পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সকাল ৯টায় একই স্থান থেকে প্রশাসনসহ জেলার বিভিন্ন সংগঠন র‌্যালি বের করে। জেলা প্রশাসন, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, প্রতিধ্বনি খেলা ঘর, কারমাইকেল কলেজ, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় (বেরোবি), মৌচাক, লায়ন্স স্কুল এন্ড কলেজসহ বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনের সাংস্কৃতিক পরিবেশনা অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা প্রশাসনের অনুষ্ঠান মালায় ছিল বৈশাখের প্রথম প্রহরে সকাল সাড়ে ছয়টায় রংপুর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্তরে সাংস্কৃতিক সংগঠন ও সিটি করপোরেশনের সহযোগিতায় সম্মিলত সাংস্কৃতিক জোটের পরিবেশনায় সাংস্কুতিক অনুষ্ঠান, এতে হাজারো মানুষের ঢল নামে।
জানা যায়, রংপুর বিভাগের লালমনির হাট, কুড়িগ্রাম, দিনাজপুর,গাইবান্ধা, নীলফামারী, পঞ্চগড় এবং ঠাকুরগাঁও এই ৭ জেলার সর্বত্রই শান্তিপূর্ণভাবে বৈশাখের অনুষ্ঠান উদযাপিত হয়। অনুষ্ঠান ঘিরে র‌্যারসহ আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর টহল ছিল চোখে পড়ার মত।

কাউনিয়া বালিকা বিদ্যালয় মোড়ের ব্যবসায়ী গোবিন্দ দাস জানান, নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা ছিল কাউনিয়া। এ কারনে নির্বিঘেœ বৈশাখ উদযাপন করতে পারছেন। কলেজ ছাত্রী রিয়া,রিমা, মৌ, আরফিন জানান,কয়েক দিন আগে থেকে বিভিন্ন গণমাধ্যমে মাধ্যমে শুনতে পারি এবার সর্বোচ্চ নিরাপত্তা বলয় থাকবে বৈশাখে। এ কারনে এক ঝাক বান্ধবি র‌্যালি করার পর আনন্দে ঘুরে বেড়ান।
কাউনিয়া মহিলা কলেজের শিক্ষক আনোয়ার হোসেন জানান, প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিরাপত্তার কোন ঘাটতি ছিল না। পর্যান্ত নিরাপত্তার মধ্যে দিয়েই তারা নববর্ষ উদযাপন করেন।

উল্লেখ্য-পহেলা বৈশাখ ঘিরে রংপুর বিভাগের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ শেষে গত শনিবার দুপুরে রংপুর প্রেসক্লাবের সামনে এক সংবাদ সম্মেলন করেছিলেন রংপুর র‌্যাব-১৩ এর অধিনায়ক ও অতিরিক্ত ডিআইজি মোজাম্মেল হক। তিনি রংপুর মহানগরীসহ বিভাগের লালমনিরহাট, কুড়িগ্রাম, ঠাকুরগাও, পঞ্চগড়. দিনাজপুর,গাইবান্ধা এবং নীলফামারী জেলার বিভিন্ন জায়গার অনুষ্ঠান নিরাপদ ও নির্বিঘœ রাখতে র‌্যাবের পক্ষ থেকে বিশেষ পরিকল্পনা গ্রহণ করা কথা তুলে ধরেছিলেন।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক - তোফাজ্জল হোসেন
Mob : 01712 522087
ই- মেইল : [email protected]
Address : 125, New Kakrail Road, Shantinagar Plaza (5th Floor - B), Dhaka 1000
Tel : 88 02 8331019