বগুড়ায় বিএনপি নেতা শাহীন হত্যা : মাঠে পুলিশের একাধিক টিম

জয়যাত্রা ডট কম : 15/04/2019

বগুড়া প্রতিনিধি : বগুড়ায় বিএনপি নেতা ও পরিবহন ব্যবসায়ী অ্যাড. মাহবুব আলম শাহীন খুনের সাথে জড়িতদের সনাক্ত করতে মাঠে নেমেছে পুলিশের একাধিক টিম। এদিকে পরিবহন মালিকদের সংগঠন মটর মালিক গ্রুপ নিয়ে চলমান বিরোধ নিয়ে শাহীনকে খুন করা হয়েছে বলে দাবী করেছেন নিহতের স্বজনেরা।

এই বিরোধ ছাড়াও উপশহর স্নিগ্ধা আবাসিক এলাকায় জমি নিয়ে বিরোধের বিষয়টি উঠে এসেছে। পুলিশের কয়েকটি টিম ছাড়াও পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) সদস্য মাঠে নেমেছেন খুনের প্রকৃত কারণ এবং জড়িতদের গ্রেফতার করতে। তারা ইতোমধ্যে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করেছেন। ঘটনাস্থলের আশেপাশের সিসি টিভির ফুটেজ দেখে পুলিশ জড়িতদের সনাক্ত করতে কাজ করছে। খুনের ঘটনার সাথে ৭-৮ জন জড়িত ছিল বলে পুলিশ প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানতে পেরেছে। নিহতের স্ত্রী আকতার জাহান শিল্পী বলেন, মটর মালিক গ্রুপের চলমান বিরোধ নিয়ে প্রতিপক্ষের লোকজন তার স্বামীকে কয়েকদিন ধরে হত্যার হুমকী দিয়ে আসছিল। নিহতের ভাতিজা শাহরিয়ার বলেন, তার চাচার একটি বাস (ঢাকা মেট্রো-ব-১৪-১২৭০) রোববার সন্ধ্যার পরে বগুড়া থেকে ঢাকা যাচ্ছিল। পথিমধ্যে বগুড়ার শেরপুরে মালিক সমিতির পক্ষ থেকে বাসটি আটক করা হয়। এসময় বাসটির ডান পার্শ্বে ক্ষতিগ্রস্থ হয়।

তিনি বলেন তার চাচা খুনের খবর পেয়ে রাতেই বাসটি ছেড়ে দেয়া হয়। বাস আটকের খবর পেয়েই তার চাচা রোববার রাত ৯টার দিকে বাসা থেকে বের হন। নিহত শাহীনের আরেক ভাতিজা মেজবাহ বলেন মটর মালিক গ্রুপ নিয়ে দ্বন্দ্ব ছাড়াও উপশহর স্নিগ্ধা আবাসিক এলাকায় জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল। তার কাছে মোটা অংকের চাঁদা দাবী করা হচ্ছিল জমি সংক্রান্ত বিষয়ে। পুলিশের পক্ষ থেকে সব বিষয়গুলো গুরুত্ব সহকারে অনুসন্ধান করে জড়িতদের সনাক্ত করার কাজ করে যাচ্ছে পুলিশের একাধিক টিম।

এদিকে জেলা বিএনপির পক্ষ থেকে বিকেল চারটায় দলীয় কার্যালয়ের সামনে মরহুমের নামাজে জানাজা হয়। এছাড়াও সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় বগুড়া আইনজীবি বার সমিতির পক্ষ থেকে ফুল কোর্ট রেফারেন্স এবং শোক সভার আয়োজন করা হয়। আইনজীবি সমিতির পক্ষ থেকে দুপুর আড়াইটায় আদালত চত্বরে প্রতিবাদ সভার আয়োজন করা হয়। বগুড়া জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) সনাতন চক্রবর্তী বলেন, একাধিক বিষয় সামনে রেখে পুলিশ অনুসন্ধান করছে। প্রাথমিক অনুসন্ধানে অনেক তথ্য পাওয়া গেছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে জড়িতদের গ্রেফতার করা সম্ভব হবে।

উল্লেখ্য, রবিবার রাত সাড়ে ১০টা থেকে পৌনে ১১টার মধ্যে বগুড়ার উপশহর বাজার এলাকায় ১০ তলা ভবনের সামনে দুর্বৃত্তরা আ্যড. শাহীনকে ছুরিকাঘাত ও কুপিয়ে খুন করে। রাত ১২টার পর বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা সহ জেলার অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তাগণ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এসময় ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আ্যড. শাহীন রাত ১০টার দিকে নিজেই প্রাইভেট কার (ঢাকা মেট্রো-গ-২৫-২৮৭৪) চালিয়ে উপশহর বাজার এলাকায় আসেন। এরপর তিনি বিসমিল্লাহ ট্রেডার্স নামের একটি চাউলের দোকানের সামনে প্রাইভেট কার রেখে সেখান থেকে চাউল কিনে চাউলের বস্তা প্রাইভেট কারের পিছনে উঠিয়ে রাখেন।

এরপর ১০তলা ভবনের পার্শ্বে রাস্তার উপর দাড়িয়ে সদরের নুনগোলা ইউপি চেয়ারম্যান আলীমুদ্দিনের সাথে গল্প করছিলেন। এমন সময় পিছন থেকে ৫-৭ জন যুবক অতর্কিত হামলা চালিয়ে তার বুকে ও পেটে ছুরিকাঘাত করে। এসময় লোকজন দৌড়ে পালিয়ে যায়। আ্যড. শাহীনও সামন্য দৌড়ে গিয়ে রাস্তার উপর পড়ে যায়। দুর্বৃত্তরা সেখানে তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে পশ্চিম দিকের রাস্তা দিয়ে দৌড়ে নিশিন্দারা মধ্যপাড়ার দিকে পালিয়ে যায়। পরে ইব্রাহীম নামের এক যুবক আ্যড. শাহীনকে উদ্ধার করে বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষনা করেন।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক - তোফাজ্জল হোসেন
Mob : 01712 522087
ই- মেইল : [email protected]
Address : 125, New Kakrail Road, Shantinagar Plaza (5th Floor - B), Dhaka 1000
Tel : 88 02 8331019