• প্রচ্ছদ » আলোচিত » ৬ মাসের মধ্যে উত্তরার ড্রেনেজ নির্মাণ কাজ শেষ করার নির্দেশ ডিএনসিসি মেয়রের


৬ মাসের মধ্যে উত্তরার ড্রেনেজ নির্মাণ কাজ শেষ করার নির্দেশ ডিএনসিসি মেয়রের

জয়যাত্রা ডট কম : 09/09/2019


নিজস্ব প্রতিবেদক:
আগামি ৬ মাসের মধ্যে রাজধানীর উত্তরায় ৪ নম্বর সেক্টরের আলাওল এভিনিউ থেকে ময়মনসিংহ রোডের পূর্ব পার্শ্বের সার্ভিস রোড হয়ে সেক্টর ৪ এর শায়েস্তা খাঁ এভিনিউ কসাইবাড়ি রেলগেট পর্যন্ত সড়কে পাইপ নর্দমাসহ রাস্তা উন্নয়ন’ কাজ শেষ করতে নির্দেশ দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র।

সোমবার ( ৯ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টায় রাজধানীর উত্তরায় ৪ নম্বর সেক্টরের ওই সড়কে পাইপ নর্দমাসহ রাস্তা উন্নয়ন’ কাজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জনদুর্ভোগের বিষয়টি সামনে রেখে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে এই নির্দেশ দিয়েছেন ডিএনসিসির মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম।

উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আবদুল হাই, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাঈদ আহমেদ, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী ও প্রকল্প পরিচালক মোঃ শরীফ উদ্দিন, কাউন্সিলর মোঃ আফসার উদ্দিন খান ।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যেউপস্থিত ছিলেন আঞ্চলিক নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সাইদুর রহমান, কর কর্মকর্তা মো. লিয়াকত আলীসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

উত্তরায় ৪ নং সেক্টরে আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, এই উন্নয়ন কাজটি সমাপ্ত হলে উত্তরা ৪ নং সেক্টরের বিভিন্ন সড়কের এবং ঢাকা-ময়মনসিংহ সড়কের পূর্ব পাশের জলাবদ্ধতা দূর হবে।।

তিনি বলেন, ডিএনসিসির আওতাধীন এলাকায় জলাবদ্ধতা তৈরি হয় এ ধরনের সকল এলাকায় পর্যায়ক্রমে জলাবদ্ধতা দূর করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজটি শেষ করার জন্য মেয়র ঠিকাদারদের নির্দেশ দেন।

নির্মাণকাজ চলাকালে জনগণের কিছুটা ভোগান্তি সৃষ্টি হবে এবং কাজটি শেষ হওয়া পর্যন্ত সহযোগিতা করার জন্য তিনি জনগণের প্রতি আহবান জানান।

মেয়র অিাতিকুল ইসলাম বলেন, এই ড্রেনটি ঢাকা ওয়াসার। কিন্তু জনস্বার্থে ডিএনসিসির নিজস্ব অর্থে কাজটি সম্পন্ন করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এই কাজটি করার জন্য ২টি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ‘ মেসার্স এসএম কনস্ট্রাকশন ও মেসার্স জনি এন্টারপ্রাইজকে কার্যাদেশ দেওয়া হয়েছে। এই প্রকল্পের ব্যয় ৩৫ কোটি ৪৭ লাখ ৪১ হাজার ৭৭ টাকা প্রাক্কলন করা হয়েছে।

মেয়র বলেন, ২০ সেপ্টেম্বর থেকে ডিএনসিসির প্রতিটি ওয়ার্ডে সড়ক ও ফুটপাত দখলমুক্ত করার জন্য অভিযান পরিচালনা করা হবে। জনগণ ফুটপাত দিয়ে হাটবেন। রাস্তা দিয়ে হাটবেন না।

প্রকল্প পরিচালক ডিএনসিসির অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মো. শরিফ উদ্দিন জানান, দীর্ঘদিনের জলাবদ্ধতা নিরসনের লক্ষে এই প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এই নির্মাণ কাজে ২.৮৭৫ কি.মি. আরসিসি পাইপ, বালু ভরাট, ইটের গাঁথুনি, আরসিসি স্ল্যাব, আরসিসি ড্রেন ও ফুটপাত, ওয়াটার বাউন্ড ম্যাকাডাম, বেসিক টাইপ-১, লেভেলিং কোর্স, ওয়ারিং কোর্স, রোড মার্কিং ইত্যাদি অন্তর্ভূক্ত। কাজটি সম্পন্ন করতে সর্বমোট নির্মাণ ব্যয় ৩৫ কোটি ৪৭ লাখ ৪১ হাজার ৭৭ টাকা প্রাক্কলন করা হয়েছে। # একে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক - তোফাজ্জল হোসেন
Mob : 01712 522087
ই- মেইল : [email protected]
Address : 125, New Kakrail Road, Shantinagar Plaza (5th Floor - B), Dhaka 1000
Tel : 88 02 8331019