• প্রচ্ছদ » জাতীয় » পাটুরিয়ায় ১৮ কিলোমিটার যানজট, ঘরমুখো যাত্রীদের দুর্ভোগ


পাটুরিয়ায় ১৮ কিলোমিটার যানজট, ঘরমুখো যাত্রীদের দুর্ভোগ

জয়যাত্রা ডট কম : 31/07/2020

নিজস্ব প্রতিবেদক :

পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌ-রুটে ফেরি স্বল্পতা ও পদ্মা-যমুনা নদীতে স্রোতের কারণে ফেরি চলাচলে বিঘ্ন হওয়ায় ঘাট এলাকায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। শুক্রবার সকালে ১৮ কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। ফলে দুর্ভোগে পড়েছেন ঘরমুখো যাত্রীরা। বৃহস্পতিবার রাত থেকে ঘাটে বসে আছেন অনেকে।

পাটুরিয়া-ঢাকা মহাসড়ক পর্যন্ত প্রায় ১০ কিলোমিটার ও উথলীর মোড় থেকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে বোয়ালী পর্যন্ত ট্রাকের তিন কিলোমিটার এবং পাটুরিয়া-নবগ্রাম সড়কে প্রাইভেটকারের যানজট প্রায় ৫ কিলোমিটার মোট ১৮ কিলোমিটার রাস্তায় যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

গাবতলী থেকে ছেড়ে আসা মাদারীপুরগামী বাসচালক সুমন হোসেন জানান, গাবতলী থেকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টায় বাস ছেড়ে রাত ১১টার দিকে পাটুরিয়া ঘাটে আসেন। কিন্ত পাটুরিয়া ঘাটে যানজটের কারণে শুক্রবার সকাল ৯টা পর্যন্ত অপেক্ষায় থেকেও ফেরি পার হতে পারেননি।
তিনি আরও জানান, পাটুরিয়া ঘাটে আসতে সময় লাগে দেড় থেকে প্রায় ২ ঘণ্টা। কিন্ত গত বৃহস্পতিবার গাবতলী থেকে শুরু করে প্রায় মানিকগঞ্জ পর্যন্ত যানজট ও যানবাহনের চাপ বৃদ্ধির কারণে পাটুরিয়া ঘাটে আসতে সময় লেগেছে প্রায় ৪ ঘণ্টা।

গাবতলী থেকে শুরু করে প্রায় মানিকগঞ্জ পর্যন্ত যানজট ও যানবাহনের চাপ বৃদ্ধির কারণে ধীর গতিতে গাড়ি চলছে।স্বাভাবিক সময়ে গাবতলী থেকে পাটুরিয়া ঘাটে আসতে সময় লাগে দেড় থেকে প্রায় ২ ঘণ্টা। কিন্ত বৃহস্পতিবার মহাসড়কে যানজটের কারণে পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় আসতে সময় লেগেছে ৩ থেকে প্রায় ৪ ঘণ্টা। ফলে ফেরি পারাপার যাত্রীদেরকে ঘাট এলাকায় এসে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষায় থেকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। গত বুধবার থেকে ঈদ করতে ঘরমুখো মানুষরা বাড়ি ফেরা শুরু করলেও বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর থেকে যাত্রী ও যানবাহনের অতিরিক্ত চাপের কারনে পা রাখার জায়গা নেই।

গাজীপুর থেকে ছেড়ে আসা কুষ্টিয়াগামী ট্রাকচালক মনির হোসেন জানান, গত মঙ্গলবার বিকেলে পাটুরিয়া ঘাটে আসেন। কিন্ত আজ শুক্রবার সকাল ৯টা পর্যন্ত ফেরি পারাপারের অপেক্ষায় পাটুরিয়া ঘাটেই পড়ে আছেন।

ঢাকা থেকে যশোরগামী কাটা লাইন লঞ্চ পারাপার বাসের যাত্রী বিল্লাল শেখ, লিমা আক্তার ও নার্গিস বেগম জানান, তারা একটি প্রাইভেট ফার্মে চাকরি করেন । তারা ঈদ করতে বাড়ি যাচ্ছেন। যানজটে পড়ে দুর্ভোগ পোহাতে হলেও তাদের চোখে-মুখে কষ্টের ছাপ দেখা যায়নি। হাসি খুশি মন নিয়ে বাড়ি ফিরে যাচ্ছেন।

আরিচা অফিসের বিআইডব্লিউটিসি’র ডিজিএম জিল্লুর রহমান জানান, এ নৌ-রুটে ১৬টি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। আসন্ন ঈদে ঘরমুখো যাত্রী ও বিভিন্ন যানবাহনের চাপ বৃদ্ধি পাওয়ায় ঘাট এলাকায় যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক - তোফাজ্জল হোসেন
Mob : 01712 522087
ই- মেইল : [email protected]
Address : 125, New Kakrail Road, Shantinagar Plaza (5th Floor - B), Dhaka 1000
Tel : 88 02 8331019