মস‌জি‌দের বাইরে সামাজিক দূরত্বের বালাই নেই

জয়যাত্রা ডট কম : 01/08/2020

নিজস্ব প্রতিবেদক :

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রে‌খে মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজহার জামাত রাজধানীর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ ঈদের নামাজ আদা‌য়ের ক্ষে‌ত্রে মুসল্লিরা সামা‌জিক দূরত্ব বজায় রাখ‌লেও, মস‌জিদ ত্যা‌গের সময় তা আর যথাযথভা‌বে মানা হ‌চ্ছে না।

শনিবার (১ আগস্ট) রাজধানীর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ঈদ জামাত শে‌ষে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ‌্যবিধি লঙ্ঘনের চিত্র দেখা গেছে। তবে ঐহিত্য ধরে রেখে কাউকে কোলাকুলি করতে দেখা যায়নি।

সরেজমিনে দেখা যায়, মুসল্লিরা গা ঘেঁষাঘেঁষি করে মসজিদে প্রবেশ করছেন। একইভা‌বে নামাজ শেষ গা‌-ঘে‌ঁষে বের হ‌চ্ছেন। নামাজ শে‌ষে হুড়োহুড়ি করে উত্তর, দক্ষিণ ও পূর্ব দিকের তিনটি পথ দিয়ে মসজিদ থেকে মুসল্লিদের বের হ‌তে দেখা গে‌ছে। ত‌বে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে এক কাতার ফাঁকা রে‌খে নামাজ আদায় করা হ‌য়ে‌ছে। স্বাস্থ্য‌বি‌ধি অনুযায়ী মুসল্লিদের অধিকাংশই মুখে মাস্ক পরেছেন।

ঈ‌দের নামাজের জন্য বায়তুল মোকাররমে পূর্ব, দক্ষিণ ও উত্তরের গেটে একটি করে দরজা খোলা রাখা হয়। প্রবেশমুখে বসানো হয় জীবাণুনাশক কক্ষ। সেসব কক্ষের ভেতর দিয়ে সারিবদ্ধ হয়ে মসজিদে ঢোকেন মুসল্লিরা। একটি করে প্রবেশপথ থাকায় মুসল্লিরা গা ঘেঁষাঘেঁষি করে মসজিদে প্রবেশ করেন। একইভাবে নামাজ শেষে বের হওয়ার সময় হুড়োহুড়ি করতে গিয়ে একে অপরের গায়ে এসে পড়েন। এমন অবস্থা দেখে মুসল্লিদের অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

দ্বিতীয় জামাত আদায় ক‌রে বের হওয়ার সময় র‌ফিকুল ইসলাম নামের একজন মুসল্লি বলেন, ‘জীবাণুনাশক কক্ষ স্থাপন করে প্রত্যেক দিকে মসজিদে কমপক্ষে দুটি করে প্রবেশপথ তথা দরজা খোলা রাখা দরকার। সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করার জন্য মসজিদে পুলিশের পাশাপাশি স্বেচ্ছাসেবকদের রাখা উচিত। আমরা মসজিদের ভেতরে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখলাম, কিন্তু প্রবেশ আর বের হওয়ার সময় সেটা বজায় রাখা সম্ভব হয়‌নি।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক - তোফাজ্জল হোসেন
Mob : 01712 522087
ই- মেইল : [email protected]
Address : 125, New Kakrail Road, Shantinagar Plaza (5th Floor - B), Dhaka 1000
Tel : 88 02 8331019