• প্রচ্ছদ » বিভাগীয় সংবাদ » খলদারদের হাত থেকে ২৫ বছর পর খালটি উদ্ধার হওয়ায় অবশেষে বরগুনার তালতলীর কৃষকদের মুখে হাসি ফুটলো


খলদারদের হাত থেকে ২৫ বছর পর খালটি উদ্ধার হওয়ায় অবশেষে বরগুনার তালতলীর কৃষকদের মুখে হাসি ফুটলো

জয়যাত্রা ডট কম : 16/09/2020


এম আর অভি,বরগুনা: দখলদারদের হাত থেকে প্রায় ২৫ বছর পর খালটি উদ্ধার হওয়ায় অবশেষে বরগুনার তালতলীর কৃষকদের মুখে হাসি ফুটে উঠল। অনলাইন জয়যাত্রা ডট কম পত্রিকায় খালটির ব্যাপারে কৃষক ও কৃষি জমির ক্ষতি করে বরগুনার তালতলীতে মাছ চাষে প্রবাহমান খাল লিজ শিরোনামে প্রতিবেদন প্রকাশ হলে প্রশাসন নড়েচড়ে বসে। পরে মঙ্গলবার(১৫-সেপ্টম্বর) বেলা ৩ টার দিকে তালতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নের্তৃত্বে তালতলী উপজেলার বড়বগী ইউনিয়নের

শিকারীপাড়া গ্রামের মধ্য দিয়া প্রবাহিত খালটি (ইজারা) চুক্তি বাতিল করে অবৈধ দখলদারদের কবল হইতে উদ্ধার করেন এবং দখলদারদের চিংড়ি চাষের স্থাপনা ভেঙ্গে খালটি চাষিদের উমুক্ত করে দেয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য মৎস্য অধিদপ্তরাধীন এফসিডিআই প্রকল্পের মাধ্যমে সরকারি খাল লিজ (ইজারা) নিয়ে মাছ চাষ করছে তালতলী উপজেলার শিকারী পাড়া গ্রামের আনোয়ার হোসেন গংরা। প্রবাহমান খালে চারটি বাঁধ দিয়ে ঘের সৃষ্টি করে তারা মাছ চাষ করে আসছিল। খালের আান্ধারমানিক নদীর প্রান্তের স্লুইজ গেট নিয়ন্ত্রন করে স্বাভাবিক পানির প্রবাহ বন্ধ করে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি করায় ওই এলাকার কৃষক ও কৃষি জমির ক্ষতি করেছে। লবণ পানি সংরক্ষণ করছে। এ কারণে বর্তমান আমন মৌসুমে খালের দুই পাড়ের হাজার হাজার একর জমির ধান ও ফসল উৎপাদন ব্যবহত হচ্ছে এমন অভিযোগ ভূক্তভোগী কৃষকদের। খালে লবণ পানি আটকানো ও জলাবদ্ধতার ফলে বিগত বোরো মৌসুমে বীজতলা তৈরি করেও কৃষকরা চাষাবাদ করতে পারেনি । এতে প্রায় ৫০ লাখ টাকার ফসল পাওয়া থেকে বঞ্চিত হত কৃষকরা। লীজ (ইজারা)গ্রহিতারা স্লুইজ গেটের মাধ্যমে নদী থেকে লবণ পানি উঠায় এবং মাছ ধরা শেষে কীটনাশক দেয় এতে ফসলের ক্ষতির পাশাপাশি উপকারি পোকা-মাকর ও স্থানীয় কৃষকদের হাঁসের খামারের হাঁস মারা যায়। তাই প্রশাসনে কাছে ওই গ্রামের কৃষকদের প্রাণের দাবী বৃহত্তর স্বার্থে ক্ষুদ্র স্বার্থকে বলি দিয়ে লিজের (ইজারার) চুক্তি বাতিল করে দখলদারের কবল হইতে খালটি উদ্ধার করে ৪টি বাঁধ কাটিয়া স্বাভাবিক পানি চলাচলের ব্যবস্থা করা। যাতে ওই গ্রামের হাজার হাজার কৃষকের জীবন বাঁচে। শিকারীপাড়া গ্রামের মধ্য দিয়া প্রবাহিত খাল মাছ চাষের জন্য লিজ দেয়া হয়েছে। এমন অভিযোগ এনে লিজ (ইজারা) চুক্তি বাতিল ও খালটির দখলদারদের কবল হইতে উদ্ধারের দাবীতে ওই এলাকার কৃষকদের পক্ষে বরগুনা জেলা প্রশাসক বরাবরে লিখিত আবেদন করেছিল আলাউদ্দিন মোল্লা নামে এক ভূক্তভোগী কৃষক।
খালটি উদ্ধার হওয়ায় কৃষকদের অনুভূতি কি এমন প্রশ্নে ওই এলাকার ইউপি সদস্য জসিম হাওলাদার বলেন, এই এলাকার হাজার হাজার কৃষক আজ আনন্দিত।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক - তোফাজ্জল হোসেন
Mob : 01712 522087
ই- মেইল : [email protected]
Address : 125, New Kakrail Road, Shantinagar Plaza (5th Floor - B), Dhaka 1000
Tel : 88 02 8331019