• প্রচ্ছদ » বিভাগীয় সংবাদ » আসন্ন ইউপি নির্বাচনে ভালুকার কাচিনা ইউনিয়নে জনপ্রিয়তার শীর্ষে বর্তমান চেয়ারম্যান লিটন


আসন্ন ইউপি নির্বাচনে ভালুকার কাচিনা ইউনিয়নে জনপ্রিয়তার শীর্ষে বর্তমান চেয়ারম্যান লিটন

জয়যাত্রা ডট কম : 28/09/2020

ওমর ফারুক তালুকদার, ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধিঃ-

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার কাচিনা ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে জনপ্রিয়তার শীর্ষে আছেন বর্তমান চেয়ারম্যান মুশফিকুর রহমান লিটন। জনগনের সেবা করেই তিনি নিজেকে অধিষ্ঠিত করেছেন এক অনন্য উচ্চতায়। কাচিনা ইউনিয়নের বাটাজোর গ্রামের ঐতিহ্যবাহী মন্ডল পরিবারে জন্মগ্রহন করেন তিনি। পিতা মাতাও পুরোদস্তুর রাজনীতিবীদ, পিতা আলহাজ্ব নজিবর রহমান দীর্ঘ ২৮ বছর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন। মাতা রাজিয়া বেগম বর্তমানে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক। ছাত্রজীবন থেকেই রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইসলামের ইতিহাস বিভাগে অনার্স মাস্টার্স কমপ্লিট করে রাজনীতিতে লাইম লাইটে আসেন মুশফিকুর রহমান লিটন। ২০১৬ সালে সখের বশে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অংশগ্রহন করেই সবাইকে তাক লাগিয়ে দেন। বিপুল ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তারপর আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি। নিজের মেধা, শ্রম আর যোগ্যতা বলেই জয় করেছেন সবার মন। স্বপ্ন দেখেন কাচিনা ইউনিয়কে মাদক মুক্ত, চাঁদাবাজ মুক্ত, জুয়া মুক্ত, দালাল মুক্ত একটি নিরাপদ ইউনিয়ন হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করবেন। স্বপ্ন পুরনে দিন রাত কাজ করে যাচ্ছেন। নির্বাচনি ইশতিহারে দেওয়া প্রতিশ্রুতি শতভগ রক্ষা করেছেন। রাজনৈতিক ক্যারিয়ারও যথেষ্ট সমৃদ্ব। ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ছিলেন, ইউনিয়ন যুবলীগের সদস্য ছিলেন, বঙ্গবন্ধু পরিষদ কাচিনা ইউনিয়ন শাখার যুগ্ন আহবায়কের দায়িত্ব পালন করেছেন, বঙ্গবন্ধুু সাংস্কৃতিক জোটের ইউনিয়ন শাখার উপদেষ্টার দায়িত্ব পালন করেছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সদস্য ছিলেন, বাটাজোর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারন সম্পাদক ছিলেন, বাটাজোর বি এম উচ্চ দ্যিালয়ের চার চার বার সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন অত্যন্ত সুনিপুন ভাবে। চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েই রাস্তা ঘাটের উন্নয়নে মনোনিবেশ করেন। গেলো ৪ বছরে ৮ কিলো রাস্তা এইচ বিবি করন করেছেন। প্রায় ৩০ কিলো রাস্তা পাকা করার জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ে আবেদন করেছেন। ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ইউনিয়নের প্রায় সবগুলো মসজিদ, মাদরাসা, মন্দিরে উন্নয়ন মুলক কাজ করেছেন। মাদক নির্মূলে সচেতনতা মুলক সেমিনার করেছেন। বাল্য বিয়ে রোধেও গুরুত্বপূর্ন ভুমিকা পালন করেছেন। করোনা কালিন সময়ে দরিদ্র অসহায় মানুষের পাশে দারিয়েছেন। মাস্ক, সেনিটাইজার সহ সুরক্ষা সামগ্রী বিতরন করেছেন সাদ্যমত। সরকারী বরাদ্দের চাল, ডাল, আলু সহ শিশুখাদ্য বিতরন করেছেন শতভাগ সচ্ছভাবে। আর এভাবেই তিনি জনতার চেয়ারম্যান হয়ে উঠেছেন। কাচিনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুশফিকুর রহমান লিটন বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গ্রামকে শহরে রুপান্তর করার ঘোষনা দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষনাকে বাস্তবায়ন করতে চেষ্টা করে যাচ্ছি। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ যদি আমাকে আবারো মনোনয়ন দেয় আগামি ৫ বছরে আমি কাচিনা ইউনিয়নের শতভাগ রাস্তা পাকা করে গ্রামকে শহরে রুপান্তর করতে চেষ্টা করবো। আমার ইউনিয়নের সকল শ্রেনী পেশার মানুষের ভালোবাসায় আমি সিক্ত। মনোনয়ন পেলে আবারো বিপুল ভোটে বিজয়ী হবো বলে আমি বিশ্বাস করি। কাচিনা ইউনিয়নকে একটি আধুনিক ও মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলতে ইউনিয়নের সকল শ্রেণী পেশার মানুষের দোয়া ও সহযোগীতা কামনা করছি।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক - তোফাজ্জল হোসেন
Mob : 01712 522087
ই- মেইল : [email protected]
Address : 125, New Kakrail Road, Shantinagar Plaza (5th Floor - B), Dhaka 1000
Tel : 88 02 8331019