Posted on

তিন দিনব্যাপী বইমেলা ও সাহিত্য-সাংস্কতিক অনুষ্ঠানের উদ্বোধন


মো.নজরুল ইসলাম,গাইবান্ধা প্রতিনিধি:
‘মুজিববর্ষের অঙ্গীকার, সাহিত্য হোক হৃদয়ের অলঙ্কার’ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে গাইবান্ধা সদর উপজেলার সাহাপাড়া ইউনিয়নের তুলসীঘাটে ২৭ মার্চ থেকে ২৯ মার্চ পর্যন্ত তিনদিনব্যাপী বইমেলা ও সাহিত্য-সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বিমল সরকার সাহিত্য পরিষদ এই বইমেলা ও অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। বইমেলায় ১৪টি স্টল খোলা হয়েছে। এরমধ্যে একটি স্টলে শুধু বিমল সরকারের বই স্থান পায়। মেলা মঞ্চে প্রতিদিন আলোচনা, কবিতা আবৃত্তি, কবিতা পাঠ, লোকগান ও ছড়াগান, নাটিকা, দেশের গান, নৃত্য ও লোকসংগীত পরিবেশিত হয়। এছাড়াও মেলা প্রাঙ্গণে বিমল সরকারের ৫ম ও ৬ষ্ঠ কাব্যগ্রন্থের এবং মামুন উর রশিদ মন্ডলের ছোট গল্প শিশু-কিশোরদের গল্প সংকলন ভোরের কান্নার মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

শনিবার বিকাল ৩টায় তুলসীঘাটে শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে তিনদিনব্যাপী এই বই মেলা শুরু হয়। মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি গাইবান্ধার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. সাদেকুর রহমান। অনুষ্ঠানে বিমল সরকারের কাব্যগ্রন্থ এবং মামুন উর রশিদ মন্ডলের ছোট গল্প শিশু-কিশোরদের গল্প সংকলন ভোরের কান্নার মোড়ক উন্মোচন করেন বিশিষ্ট সাহিত্যিক-কবি গাইবান্ধা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর সাবু। সম্পাদেবের প্রাণবন্ত সঞ্চালনায় এবং আব্দুল মাবুদ মন্ডল মিন্টুর সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন সাহাপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মওলা, বল্লমঝাড় ইউপি চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম ঝন্টু, সাবেক চেয়ারম্যান এমারুল ইসলাম সাবিন, পাবলিক লাইব্রেরী এন্ড ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল হক জনি, অধ্যাপক একেএম ফেরদৌস, মানবাধিকার নাট্য পরিষদের সভাপতি আলম মিয়া, জুলফিকার রহমান প্রমুখ।

এছাড়া বইমেলা উপলক্ষে জেলার গুণী কবি-সাহিত্যিকদের সম্মাননা প্রদান করা হয়। সম্মাননাপ্রাপ্তরা হলেন- অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. সাদেকুর রহমান, বিশিষ্ট সাহিত্যিক-কবি গাইবান্ধা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর সাবু, সাহাপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মওলা, বল্লমঝাড় ইউপি চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম ঝন্টু, পাবলিক লাইব্রেরী এন্ড ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল হক জনি। পরে স্বরচিত কবিতা পাঠ, আবৃত্তি ও এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। জমজমাট মেলার মাঠে বইয়ের স্টলে গ্রন্থ প্রদর্শনী ছাড়াও শিশু-কিশোরদের খেলা-ধুলার ব্যবস্থাসহ গ্রামীণ মেলার সাদৃশ্যে নানা রকমের খাবারের দোকানও খোলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, মেলার দ্বিতীয়দিনে তুলসীঘাট কাশীনাথ উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মনছুর আলীর সরকারের সভাপতিত্বে আলোচনা পর্বে প্রধান অতিথি থাকবেন অধ্যাপক জহুরুল কাইয়ুম ও বিশেষ অতিথি থাকবেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুর রহমান রাজা এবং তৃতীয় দিনে তুলসীঘাট কাশিনাথ উচ্চ বিদ্যালয়ের কুমুদরঞ্জন পালের সভাপতিত্বে আলোচনা পর্বে প্রধান অতিথি থাকবেন কবি সরোজ দেব ও বিশেষ অতিথি থাকবেন অধ্যাপক সমীর কুমার সরকার।