Posted on

গাইবান্ধায় কালবৈশাখীর ঝড়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ জন

মো.নজরুল ইসলাম,গাইবান্ধা প্রতিনিধি

গাইবান্ধা জেলা সদরসহ সাত উপজেলার উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া প্রচ- কালবৈশাখী ঝড়ে পড়া গাছের নিচে, ঘরের চাপা ও উড়ে আসা ঘরের টিনের চালায় চাপা পড়ে আহতদের মধ্য থেকে এখন মৃতের সংখ্যা বেড়ে এখন দাঁড়িয়েছে ১০ জন।
নতুন করে যে ৬ জনের মৃত্যুর সংবাদ পাওয়া গেছে তারা হলো- সদর উপজেলার বাদিয়াখালী ইউনিয়নের সরকারটারি রিফাইতপুর গ্রামের খগেন্দ্র নাথের স্ত্রী জোসনা রাণী (৬৫), রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের হরিণসিংহা তিনগাছেরতল গ্রামের হিরু মিয়ার শিশু পুত্র মনির হোসেন (৫) ও আরজি বাসুদেবপুর গ্রামের রিজু মিয়ার স্ত্রী আরজিনা বেগম (২৮), মালিবাড়ি ইউনিয়নের ঢনঢনিপাড়ার মিঠু মিয়ার স্ত্রী সাহেরা বেগম (৪০), ফুলছড়ি উপজেলার এরেন্ডাবাড়ি ইউনিয়নের ডাকাতিয়ার চর গ্রামের হাফিজ উদ্দিন (৬৫), পলাশবাড়ি উপজেলার মনোহরপুর ইউনিয়নের কুমিদপুর গ্রামের মৃত আব্দুল কাদেরের স্ত্রী মমতা বেগম (৬৪)।
প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, রোরবার দুপুর আড়াইটায় এক ঘন্টার কালবৈশাখী ঝড়ে ভেঙ্গে পড়া গাছের নিচে চাপা পড়ে যাদের মৃত্যু হয়, তারা হলো পলাশবাড়ী উপজেলার ডাকেরপাড়া গ্রামের ইউনুস আলীর স্ত্রী জাহানারা বেগম (৪৯), মোস্তফাপুর গ্রামের আবźাস আলীর ছেলে গোফফার আলী (৩৮), সুন্দরগঞ্জ উপজেলার আমেনা বেগম (৪৫) ও ফুলছড়ি উপজেলার কাতলামারী গ্রামের শিমুলী বেগম (২৫)।