গাইবান্ধায় লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪২ জনসহ অন্য সংবাদ

মো.নজরুল ইসলাম,গাইবান্ধা প্রতিনিধি:
গাইবান্ধায় লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। প্রতিদিন বেড়ে চলেছে আক্রান্তের সংখ্যা। মাত্র ২৪ ঘন্টার ব্যবধানেই গাইবান্ধা জেলা সদর হাসপাতালে আক্রান্তের সংখ্যা আগের দিনের চেয়ে ২৯ জন বেড়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় রোববার করোনা ভাইরাসে নতুন করে ৪২ জন শনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে সদরে ২০, গোবিন্দগঞ্জে ৭, ফুলছড়িতে ২, সুন্দরগঞ্জে ২, পলাশবাড়ীতে ৪ ও সাদুল্যাপুর উপজেলায় ৭ জন। এর আগেরদিনই করোনা শনাক্তের সংখ্যা ছিল মাত্র ১৩ জন। তবে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত নানা উপসর্গে সন্দেহজনকভাবে ৪২ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। জেলায় হোম কোয়ারেন্টাইনে চিকিৎসা শেষে ছাড়পত্র নেয়া রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭ হাজার ৪৫৮ জন। এদিকে জেলায় সর্বমোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৬ জন। এরমধ্যে ২০ জন মারা গেছে। জেলায় হোম কোয়ারেন্টাইন ব্যক্তি মোট ৯ হাজার ৭১০ জন। এদের মধ্যে হোম কোয়ারেন্টাইন শেষে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে মোট ৭ হাজার ৪৫৮ জনকে।
এছাড়া জেলায় করোনায় শনাক্ত ২ হাজার ৬ জনের মধ্যে ১ হাজার ৭৮৪ জন রোগী সুস্থ হওয়ায় তাদেরকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে। সিভিল সার্জন কার্যালয় সুত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।


ব্যবসায়ী রোকন হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও বিচার দাবি

গাইবান্ধা সদর উপজেলার রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের বালুয়া বাজারে ব্যবসায়ী রোকন সরদার হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও বিচার দাবিতে গাইবান্ধায় মানববন্ধন, প্রতিবাদ সমাবেশ ও পুলিশ সুপারের কাছে স্মারকলিপি প্রদান কর্মসূচী পালিত হয়েছে।
রোববার সকালে জেলা শহরের ডিবি রোডের ১নং ট্রাফিক মোড় এলাকায় এ মানববন্ধনের আয়োজন করে সচেতন এলাকাবাসী। এতে নিহত ব্যবসায়ী রোকনের ৪ বছরের শিশু সন্তান রোহান ও স্ত্রী এবং স্বজনরাসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ছাড়াও এলাকার বিপুল সংখ্যক নারী-পুরুষ স্বত:স্ফুর্তভাবে অংশগ্রহণ করে। প্রখর রোদ উপেক্ষা করে প্রায় সাড়ে ৮ কিলোমিটার পথ হেঁটে এসে এই মানববন্ধনে অংশ নেয় গ্রামবাসী।
মানববন্ধন চলাকালে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও পেশাজীবী সংগঠনের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন রণজিৎ বকসী সূয্য, মাহমুদা পারুল, মিহির ঘোষ, মির্জা হাসান, গোলাম মারুফ মনা, মনজুর আলম মিঠু, অ্যাড. মোস্তফা মনিরুজ্জামান, মাসুদুর রহমান মাসুদ, আনোয়ারুল কবির সজল, হেদায়েতুল ইসলাম বাবু, রওশন আরা মুক্তি, আবুল কালাম প্রমুখ।


গাইবান্ধা শহরের সীমাহীন যানজট

গাইবান্ধা জেলা শহরের সীমাহানী যানজট নিরসনে নির্মাণাধীন ফোরলেন প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজে ধীরগতি ও নি¤œমানের সামগ্রী ব্যবহারের প্রতিবাদে রোববার জেলা শহরের ডিবি রোডে গানাসার্স মার্কেটের সামনে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। গাইবান্ধা নাগরিক মঞ্চ এই কর্মসূচীর আয়োজন করে।
এতে বক্তব্য রাখেন মঞ্চের সদস্য সচিব অ্যাড. সিরাজুল ইসলাম বাবু, ওয়াজিউর রহমান রাফেল, ময়নুল ইসলাম রাজা, মিহির ঘোষ, মনজুর আলম মিঠু, জিএম চৌধুরী মিঠু, আবু রাহেন শফিউল্যাহ খোকন, অ্যাড. মোস্তফা মনিরুজ্জামান, শহিদুল ইসলাম, মাসুদার রহমান মাসুদ, গোলাম রব্বানী মুসা, মামুনুর রশীদ রুবেল, নিলুফার ইয়াসমিন শিল্পী প্রমুখ।
৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন

সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট ছয় সংগঠনের সদস্যপদ স্থগিত

সাংস্কৃতিক মন্ত্রণালয়ে চারুশিল্প ও থিয়েটার খাতের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে গাইবান্ধার সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট কর্তৃক দারিয়াপুরের ৬টি সাংস্কৃতিক সংগঠনের সদস্যপদ সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে। এছাড়া এই অনিয়শ ও দুর্নীতি তদন্তে ৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট গাইবান্ধা জেলা শাখার সভাপতি আলমগীর কবির বাদল রোববার স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, গাইবান্ধার স্টেশন রোডের সোহাগ বডিং এর ছাদে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, গাইবান্ধার কার্যনির্বাহী পরিষদের এক জরুরী সভা রোববার সকালে সংগঠনের সভাপতি আলমগীর কবির বাদলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের অনুদানকৃত প্রতিষ্ঠানের অর্থ বরাদ্দ সংক্রান্ত বিষয়ে সদর উপজেলার দারিয়াপুর সারথি থিয়েটারের জুলফিকার আলী চঞ্চলের বিরুদ্ধে একাধিক সংগঠনের নামে অর্থ উত্তোলনের ব্যাপারে বিষয়টি সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট এর নজরে এলে গাইবান্ধার সংগঠনভুক্ত তার মূল সংগঠন সারথি থিয়েটার বাদে ৬টি জোটভুক্ত সংগঠনের সদস্যপদ সর্বসম্মতিক্রমে সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়। সংগঠনগুলো হচ্ছে শহিদ আলতাফ মাহমুদ সংগীতায়ন, সেলিম আলদীন নাট্যায়তন, ভোর হলো গাইবান্ধা শাখা, দোয়েল বাচিক বিদ্যায়তন, ভোর হলো সাংস্কৃতিক বিদ্যালয়, উদয় শঙ্কর নৃত্যায়ন দারিয়াপুর, গাইবান্ধা। তার বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ সমূহ তদন্তের জন্য ৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।
প্রসঙ্গত, ২০২০- ২১চলতি অর্থ বছরে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের অধীনে চারুশিল্প ও থিয়েটার খাত থেকে সদর উপজেলার দারিয়াপুরের সাইনবোর্ড সর্বস্ব একই ব্যক্তি পরিচালিত ৮টি সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানকে ২ লাখ ৯০ হাজার টাকা অনুদান দেয়া হয়েছে। গাইবান্ধা সদর উপজেলার ঘাগোয়ার বিজয় চন্দ্র বর্মন স্বাক্ষরিত সাংস্কৃতিক প্রতিমন্ত্রী বরাবরে এব্যাপারে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এই লিখিত অভিযোগের অনুলিপি গত ২১ জুন সোমবার জেলা প্রশাসক, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার, পরিচালক, শিল্পকলা একাডেমি, ঢাকা, বাংলাদেশ গ্রæপ থিয়েটার ফেডারেশন ও বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটার কেন্দ্রীয় কমিটিতেও পাঠায়।

হর্কার্স মার্কেট ব্যবসায়ি সমিতির কমিটি গঠন

গাইবান্ধা শহরের হকার্স মার্কেটের বিভিন্ন সমস্যা সমাধান ও ব্যবসায়িক পরিবেশ উন্নয়নের লক্ষ্যে বাজারে গত শনিবার রাতে ব্যবসায়ি ও দোকান মালিকদের এক আলোচনা ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ায় কোন প্যানেল না থাকায় একটি মাত্র প্যানেল উত্থাপিত হওয়ায় পুনরায় পূর্বের কমিটি বিনা প্রতিদ্ব›িদ্বতায় নির্বাচিত হয়।
মো. জাকির হোসেন মাসুদের সভাপতিত্বে আলোচনা ও মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন খান মো. সাইদ হোসেন জসিম, রাসেল রহমান, সুজন প্রসাদ, ছাইদার রহমান, শাহজাহান সরকার প্রমুখ। সভা শেষে উপস্থিত সকলের সর্বসম্মতিক্রমে ২৯ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়।
কমিটির কর্মকর্তারা হচ্ছেন- সভাপতি মো. জাকির হোসেন মাসুদ, কার্যকরি সভাপতি মো. ছদরুল ইসলাম বাবলু, সহ-সভাপতি মো. মোস্তফা কামাল এপিল, সাধারণ সম্পাদক খান মো. সাইদ হোসেন জসিম, সহ-সাধারণ সম্পাদক মো. রাসেল আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক সুজন প্রসাদ, কোষাধ্যক্ষ শাহজাহান সরকার, দপ্তর সম্পাদক মোহাম্মদ আলী মিঠু, বিজ্ঞান ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মো. জুয়েল মিয়া, প্রচার সম্পাদক মো. আমিনুল ইসলাম, আইন বিষয়ক সম্পাদক মো. ইমরান মিয়া, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মো. শাহ আলম, ক্রীড়া সম্পাদক মো. সোহরাব হোসেন সুইট, সমাজসেবা সম্পাদক মো. মাহবুব মিয়া, সদস্য মোখলেছুর রহমান, প্রাণকান্ত বর্মন, মো. রফিকুল ইসলাম, খান মো. সাইফ হোসেন শাহীন, মো. তিতাস মন্ডল, মো. সেলিম মিয়া, মো. আতাউর রহমান, এসএম পিটার, মো. আনিছুর রহমান, মো. জনি মিয়া, মো. রেজাউল করিম, দেবেন্দ্রনাথ, মো. আশরাফুল ইসলাম, আব্দুর রহমান, মো. নাদের আলী।

জন্মদিনে ভালোবাসায় সিক্ত হলেন সাহিত্যিক-সাংবাদিক সাবু

৭৪তম জন্মদিনে সংস্কৃতিকর্মী, সংগঠক, ভক্ত অনুরাগী ও সাংবাদিক সহকর্মীদের শ্রদ্ধা ভালোবাসা ও ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হলেন সাহিত্যিক-সাংবাদিক বহুমাত্রিক লেখক আবু জাফর সাবু। রোববার সকালে গাইবান্ধা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে জন্মদিনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করে গাইবান্ধার ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতিক সংগঠন সুরবানী সংসদ।
অনুষ্ঠানে গাইবান্ধা প্রেস ক্লাব, সুরবানী সংসদ, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, গাইবান্ধা নাট্য ও সাংস্কৃতিক সংস্থা, অন্তরঙ্গ থিয়েটার, বাংলাদেশ বেসরকারী গণগ্রন্থাগার পরিষদ জেলা শাখাসহ বিশিষ্টজনদের পক্ষ থেকে আবু জাফর সাবুর দীর্ঘায়ু কামনা করে তাকে জন্মদিনের ফুলেল শুভেচ্ছা ও উপহার প্রদান করা হয়। এসময় সুরবানী সংসদের পক্ষ থেকে তাঁকে সম্মাননাপত্রও দেয়া হয়।
এসময় জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন প্রেস ক্লাব সভাপতি কেএম রেজাউল হক, সহ-সভাপতি দীপক কুমার পাল, যুগ্ম সম্পাদক সিদ্দিক আলম দয়াল, সাহিত্য সাংস্কৃতিক সম্পাদক উত্তম সরকার, সমাজকল্যাণ সম্পাদক কুদ্দুস আলম, সদস্য রেজাউল হক মিতা, রজতকান্তি বর্মন, খায়রুল ইসলাম, আফরোজা লুনা, রিকতু প্রসাদ, শামসুজ্জোহা, সাংস্কৃতিক কর্মী ফারুক শিয়র চিনু, আলমগীর কবির বাদল, স্বপন সাহা, দেবাশিষ দাশ দিপু, সাজু সরকার, কবি সোহেল রানা, সুরবানী সংসদের সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান চান, আকতারুজ্জামান মহব্বত, সাংবাদিক কায়সার রহমান রোমেল, বাংলাদেশ বেসরকারি গণগ্রন্থাগার পরিষদে জেলা শাখার শামীম সরকার, রফিকুল ইসলাম প্রমুখ। আবু জাফর সাবু ১৯৪৮ সালের ২৭ জুন বুধবার পিতা আব্দুর রশিদ ও মাতা লুৎফুন্নেছার ঔরসে গাইবান্ধায় জন্ম গ্রহণ করেন।