সাকরাইন উৎসবে মেতেছিল পুরান ঢাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক :
পুরানো ঢাকার আকাশে রঙ ছড়িয়েছে ঘুড়ি। আর বাড়ির ছাদে পথে পথে আনন্দে উদ্বেল মানুষ মেতে উঠেছিল ঘুড়ি ওড়ানোর আনন্দে। বেলা যত গড়িয়েছে পুরান ঢাকার আকাশে ততই হাওয়ায় উড়েছে রং বেরঙের ঘুড়ি। বাড়ির ছাদে ছাদে আনন্দ আয়োজন।

উৎসবমুখর পরিবেশে বাড়ির ছাদ থেকে ঘুড়ি ওড়ানো, আতশবাজি ফোটানো এবং মুখে কেরোসিন নিয়ে আগুন খেলাও খেলেছেন অনেকে। সব মিলিয়ে পুরান ঢাকা যেন সাকরাইনের আনন্দে মাতোয়ারা। শেষ দিন শুক্রবার ছিল সাকরাইন উৎসব। ঘুড়ি ওড়ানোর ঐতিহ্যবাহী উৎসবকে পুরান ঢাকার বাসিন্দারা বলে সাকরাইন উৎসব। সাকরাইন উপলক্ষে দিনভর চলে ঘুড়ি ওড়ানো আর কাটাকাটির খেলা। সঙ্গে নাচ-গান আর শীতের পিঠাপুলি খাওয়া। আর সন্ধ্যায় শুরু হয় আতশবাজি, ফানুস উড়ানো আর কেরোসিন মুখে আগুনের হলকা ছোড়ার কসরত।সন্ধ্যা নামতেই গানের সঙ্গে নাচ, আতশবাজি আর লেজার লাইটের খেলা ছিল প্রায় প্রতিটি ছাদেই। বিশেষ করে আতসবাজিতে রাঙা হয়ে ওঠে পুরো পুরান ঢাকার আকাশ। সন্ধ্যার ঠিক পরেই শুরু হয় কেরোসিন মুখে নিয়ে আগুনে খেলা।পুরান ঢাকার বাসিন্দা ফারুক আহমেদ জানান, ছোটবেলা থেকে এই উৎসব করে আসছেন তারা। প্রতিবছর বন্ধুরা মিলে চাঁদা তুলে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে উদযাপন করেন সাকরাইন উৎসব।

তিনি জানান, সারা দিন ঘুড়ি উড়ানোর পাশাপাশি পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী খাবারের আয়োজন থাকে এই দিনে। এর পাশাপাশি ছাদে সাউন্ড বক্সে গান, ফানুস, আতশবাজি, পটকাসহ নানা আয়োজনে উদযাপন করা হয়।